রাজনীতি

কংগ্রেস নেত্রী বললেন ডালের দাম ১৭০ টাকা কেজি। সাংবাদিক প্রশ্ন করলেন কোন ডালের এমন দাম? উত্তরে যা এলো…

দেশের সবথেকে পুরানো দল কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী নিজের মন্তব্য ও বক্তব্যের জন্য প্রায়ই সংবাদের শিরোনামে থেকে থাকেন। মাঝে মধ্যেই রাহুল গান্ধী ভাষণে এমন এমন কিছু মন্তব্য করে ফেলেন যার জন্য উনি সাধারণ মানুষের ক্ষোপের নিশানায় চলে আসেন ও পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল হন। তবে রাহুল গান্ধী ছাড়াও কংগ্রেস পার্টিতে এমন কিছু নেতা রয়েছেন যারা বিতর্কিত বক্তব্যের জন্য কুখ্যাতি অর্জন করেছেন। এই নেতানেত্রীরা এমন কিছু বলে দেন যাতে সভাপতির সাথে সাথে পুরো কংগ্রেস দলকে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। কংগ্রেস এখন রাফেল চুক্তি নিয়ে মোদী সরকারের উপর নিশানা করতে শুরু করেছে। তবে সমস্যা এই যে রাহুল গান্ধী নিজেই বিভিন্ন স্থানে রাফেলের বিভিন্ন মূল্য বলেছিলেন যার কারণে এটা প্রমাণিত হয় যে কংগ্রেসের নেতারা নিজেরাই দাম ঠিকমতো জানে না অথচ তারা বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন করে জনতাকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। রাফেল চুক্তি নিয়ে তোলপাড় বন্ধ হতে না হতেই আরো এক কংগ্রেস নেত্রী এমন কিছু বলেছেন যাতে আপনিও অবাক হবেন।

১০ সেপ্টেম্বর কংগ্রেস সহ বাকি বিরোধীরা পেট্রোল ও ডিজেলের দাম নিয়ে রাস্তায় আন্দোলন করে, ভাঙচুর চালিয়ে ক্ষোপ প্রদর্শন করেছিল। এই বিষয়ে এখনো কংগ্রেস নেতানেত্রীর লাগাতার প্রেস কনফারেন্স করে ইস্যুটিকে জনতার সামনে আনতে চাইছে।কংগ্রেসের বড়ো নেত্রী কুমারি শাইলাজা ডালের মূল্য নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেছেন যা জানার পর আপনারও এই ধারণা আসবে যে এরকম নেতা নেত্রী একমাত্র কংগ্রেসেই দেখা যায়। আসলে এই কংগ্রেস নেত্রী প্রেস কনফারেন্স করে বলেছেন ডালের মূল্য বেড়ে এখন ১৭০ টাকা কেজি হয়ে গেছে। উনার এই বক্তব্য শোনার পর পাশে দাঁড়ানো অন্যান্য কংগ্রেস নেতারাও চমকে উঠেন এবং একে অপরের দিকে লক্ষ করতে করেন।

কংগ্রেস নেত্রী কুমারী শাইলাজা এই মন্তব্য শুনে অবাক হয়ে বাকি কংগ্রেস নেতারা ভাবতে শুরু করেন যে নেত্রী কোন ডালের কথা বলছেন যার দাম ১৭০ টাকা কেজি। তাহলে কি বর্তমানে ভারতে নতুন কোনো ডালের চাষ হচ্ছে যা কারোর জানা নেই। এরপর এক সাংবাদিক উনাকে জিজ্ঞাসা করেন যে কোন ডাল ১৭০ টাকা কেজি এখন? প্রশ্ন শুনে কংগ্রেস নেত্রী চিন্তা করতে শুরু করেন এবং অন্যান্য কংগ্রেস নেতানেত্রীদের সাথে আলোচনা করেন। কিন্তু কোনো জবাব দিতে না পেরে প্রেস কনফারেন্স বন্ধ করতে বলেন।

এরপর অন্যান্য জনতা কংগ্রেস নেত্রীকে বলে, জনতাকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন ইনি। উপস্থিত এক সাধারণ মানুষ দাবি করেন, এখন অড়হরের ডালের মূল্য ৭৫ টাকা প্রতি কিলো, মুগ ডালের মূল্য ৮০-১০০ টাকা প্রতি কিলো, মুসরের ডালের মূল্য ৬০-৮০ টাকা প্রতি কিলো, চানা ডালের মূল্য ৮০ টাকা প্রতি কিলো। এই ডাল সাধারণ মানুষ মানুষ দৈনিক জীবনে ভোজন হিসেবে গ্রহণ করে। কিন্তু শাইলাজা ডালের দাম ১৭০ টাকা কেজি বলে রাহুল গান্ধীর মতোই কাজ করেছেন এবং নিজের পায়ে নিজেই কুড়ুল মেরেছেন।

Facebook Comments
Tags

Related Articles

Open

Close