অপরাধ

মাধ্যমিকে বসিয়ে দেওয়ার নাম করে কিশোরীর শ্লীলতাহানিতে অভিযুক্ত স্থানীয় তৃণমূল নেতা, পকসো আইনে দায়ের হল অভিযোগ

মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষায় দশম শ্রেণীর অকৃতকার্য করায় এক স্কুল ছাত্রীকে মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসার ব্যবস্থা করিয়ে দেবে এই শর্তে ওই নাবালিকা স্কুল ছাত্রীর সঙ্গে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠল উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহর জেঠিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার এক স্থানীয় তৃনমূল নেতার বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত স্থানীয় ওই তৃনমূল নেতার নাম রতন দাস। রতন বাবুর স্ত্রী ছবি দাস উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহর জেঠিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল কংগ্রেসের গ্রাম সংসদ সদস্যা বলে জানা গেছে।

অভিযুক্ত রতন দাস

হালিশহরের পশ্চিম বালিভারার ঝিলপাড়া অঞ্চলের পঞ্চায়েত সদস্যা ছবি দাসের স্বামী রতন দাসের সঙ্গে দশম শ্রেণীর ওই স্কুল ছাত্রী গত ২২ তারিখে দেখা করতে গেলে রতন ওই ছাত্রীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে এবং শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। বয়স জনিত সমস্যার কারনে মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষা দেওয়ার সু্যোগ পায়নি হালিশহর প্রসাদ নগর স্কুলের ওই ছাত্রী। ফলে মাধ্যমিকের টেস্টে অকৃতকার্য হয় ওই স্কুল ছাত্রী। তবে ওই ছাত্রী কোনভাবে মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসতে চাইছিল। তখন অন্যদের সঙ্গে কথা বলে সে জেঠিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের স্থানীয় তৃনমূল নেতা রতন দাসের সঙ্গে দেখা করতে যায়, যদি রতন স্কুলে কথা বলে ওই ছাত্রীকে পরীক্ষা দেওয়ানোর ব্যবস্থা করিয়ে দিতে পারে।

অভিযোগ, রতন ওই ছাত্রীর পরীক্ষা দেওয়ানোর ব্যবস্থা করে দেবে বলে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাকে একা পেয়ে ওই ছাত্রীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে বলে অভিযোগ। গত বৃহস্পতিবার রাতে এই ঘটনা ঘটলে ওই ছাত্রী বাড়ি ফিরে গোটা বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে ওই ছাত্রীর অভিভাবকরা শুক্রবার বীজপুর থানায় গিয়ে রতনের বিরুদ্ধে পকসো আইনে অভিযোগ দায়ের করে। এই ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত রতন দাস পলাতক। বীজপুর থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

Facebook Comments
521 Shares

Related Articles

Open

Close