দুর্নীতি

কংগ্রেসের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মালিয়াকে সহজেই ঋণ পাইয়ে দিতে সাহাজ্য করেছিলেন বলে জানান মালিয়ার আইনজীবী

লন্ডনে পালিয়ে যাওয়া ভারতের মদ ব্যাবসায়ি বিজয় মালিয়ার ভারতে নিয়ে আসার রাস্তা পরিস্কার হয়ে গেছে। কিন্তু এই মামলার শুনানির সময় অভিযোগ আর পাল্টা অভিযোগ এর বন্যা বয়ে গেছে। আর সেই সময় অনেক না জানা কথাও সামনে এসেছে।

মালিয়ার লিগাল টিমের সদস্য তথা রাজনৈতিক এবং আর্থিক বিশেষজ্ঞ প্রফেসর লরেন্স সেজ আদালতে জানান, আমার মক্কেল বিজয় মালিয়া ভারতের রাজনীতির প্যাচে পরেছে। সেজ অভিযোগ জানিয়ে বলেন, কংগ্রেসের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মালিয়াকে ঋণ পাইয়ে দিতে সাহাজ্য করেন।

সোমবার লন্ডন আদালত বিজয় মালিয়ার মামলার রায় দিয়ে তাঁকে ভারতে প্রত্যর্পণ করার মঞ্জুরি দেন। ৬২ বছর বয়সী বিজয় মালিয়া আনুমানিক ৯০০০ কোটি টাকার ঋণ নিয়ে বিদেশে পালিয়ে যায়। আদালতের রায়ের আগে মালিয়া টুইট করে জানায়, ‘আমি একটাকার ও ঋণ নিইনি, ঋণ কিংফিশার এয়ারলাইন্স নিয়েছিল। ব্যাবসা খারাপ চলার ফলে সব পয়সা নষ্ট হয়ে যায়” মালিয়া বলেন, ‘আমি মূল অর্থের ১০০ শতাংশই দেওয়ার কথা জানিয়েছি।

Facebook Comments

Related Articles

Close