দুর্নীতি

ফেটে গেল ঢোল- হেলিকপ্টার কেলেঙ্কারিতে মিসেস গান্ধী এবং ছেলের নাম উল্লেখ করলো দালাল ক্রিশ্চিয়ান মিশেল

কংগ্রেস আমলে হওয়া VVIP হেলিকপ্টার কেলেঙ্কারিতে এবার সরাসরি নাম আসলো গান্ধী পরিবারের। আর এর ফলেই এতদন ধরে বিজেপির করা অভিযোগ আইনি বৈধতা পেল।

আজ দিল্লীর আদালতে এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেটের তরফে দায়ের করা তথ্যে বলা হয়েছে যে গোয়েন্দাদের জেরায় এই মামলার অন্যতম অভিযুক্ত ক্রিশ্চিয়ান মিশেল ইটালিয়ান মিসেস গান্ধী এবং তার ছেলের কথা উল্লেখ করেছেন। তবে কোন বিষয়ের প্রেক্ষিতে এই দুজনার উল্লেখ করেছেন তা এখনো জানা যায়নি ।

তবে তার উল্লেখ করা দুই ব্যক্তি যে আসলে সোনিয়া গান্ধী এবং তার ছেলে রাহুল গান্ধী সে ব্যাপারে কারোর কোন সন্দেহ নেই।

উল্লেখ্য যে বিগত UPA সরকারের আমলে হওয়া VVIP হেলিকপ্টার কেলেঙ্কারিতে অন্যতম অভিযুক্ত  ক্রিশ্চিয়ান মিশেলকে দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর এই বছরের ডিসেম্বরের প্রথম দিকে UAE থেকে প্রত্যর্পন করে ভারতে এনেছিল।

৭ দিন রিমান্ডের পর আজ দিল্লীর পাটিয়ালা হাউস আদালতে ক্রিশ্চিয়ান মিশেলকে পেশ করে এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট। আজ ইডির তরফে তাকে রিমান্ডের আবেদন জানানো হয়। আর তার পক্ষে সওয়াল করতে গিয়েই এই কথা জানান ইডির আইনজীবী। তিনি জানান যে জেরার মুখে তিনি R নামের এক ব্যক্তির কথা উল্লেখ করেছেন, তাই তাকে নতুন করে রিমান্ডে নিয়ে আধিকারিকরা জানতে চান যে R নামের এই বড় ব্যক্তি আসলে কে। এছাড়াও আজ ইডির তরফে তাকে আইনজীবীর সাথে দেখা করার ওপর নিষেধাজ্ঞা লাগানোর আবেদন করলে আদালাত তাকে আগে প্রতিদিন এক ঘন্টার পরিবর্তে মাত্র ১৫ মিনিট দেখা করার অনুমতি দেয়।

ইটালিয়ান কম্পানি অগাস্টা ওয়েস্টল্যান্ডের থেকে ৩৬০০ কোটি টাকার বিনিময়ে ১২টি হেলিকপ্টার কেনার চুক্তি করেছিল বিগত কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীণ UPA  সরকার। এই আর্থিন লেনদের মধ্যস্থতাকারী ছিলেন ৫৪ বছর বয়সী ব্রিটিশ নাগরিক ক্রিশ্চিয়ান মিশেল। তবে আর্থিক দূর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর ২০১৪ সালে বিজেপির সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই চুক্তি বাতিল করে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছল, যার পরেই এই গ্রেপ্তারি সম্ভব হয়।

 

 

Facebook Comments
27K Shares

Related Articles

Open

Close