মোদী সরকার

পাশ হল বিল, বাংলাদেশ, পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দুরা পাবে ভারতের নাগরিকত্ব

পূরণ হল দীর্ঘ দিনের দাবী, আর আশানুরূপ সেই দাবী পূরণকর্তা ভারতীয় জনতা পার্টির নেতৃত্বাধীন NDA সরকার। আজ লোকসভায় পাশ হয়ে গেল contentious Citizenship (Amendment) Bill 2019

এই বলের মাধ্যমে ভারতের প্রতিবেশী দেশগুলি থেকে শুধু মাত্র হিন্দু বা অনান্য সংখ্যালঘু ধর্মের হওয়ার কারণে সেই দেশগুলির মুসলিম কট্টরপন্থীদের হাতে আক্রান্ত সংখালঘুদের ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়া নিশ্চিত করা হয়েছে।

 

আশানুরূপ ভাবেই এই বিলের বিরোধীতায় সরব হয়েছিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস, যারা খোলাখুলি বাংলাদেশ থেকে আসা মুসলিম এবং মায়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমদের রাজ্যে জামাই আদর দিলেও বাংলাদেশ থেকে অত্যাচারিত হয়ে আসা হিন্দুদের এই দেশে স্থান দেওয়ার ঘোর বিরোধী।

উল্লেখ্য যে ভারতের প্রতিবেশী মুসলিম দেশগুলিতে দেশ ভাগ হওয়ার পর থেকেই লাগাতার কমছে হিন্দুদের সংখ্যা। কখনো তাদের মন্দির, বাড়ি-ঘর ভেঙে জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে, কখনো খুন করে বা কখনো তাদের জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করানো হচ্ছে। বাংলাদেশে মন্দির ভাঙা বর্তমানে রোজকার ব্যাপার হয়ে গেছে।

বাংলাদেশের প্রতিদিন এভাবেই ভেঙে ফেলা হয় মন্দির

১৯৪১ সালে পূর্ব বাংলায় হিন্দু ছিল ২৮%, যা ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের পর হয়ে যায় ২২%, কিন্তু এরপর শুরু হয় হিন্দুদের ওপর সংঘবদ্ধ হামলা এবং সামাজিক বয়কট। আর তারই পরণামে বাংলাদেশের বর্তমানে হিন্দু মাত্র ৯% হয়ে গেছে। একই ভাবে পাকিস্তানেও ক্রমাগত কমছে হিন্দুদের সংখ্যা। আর একদা হিন্দু শাসিত আফগানিস্তানে এখন মাত্র কয়েকশো হিন্দু অবশিষ্ট আছে।

তাই দেশের সেকুলার দলগুলি রোহিঙ্গাদের জন্য মিছিল বের করে, প্যালেস্টাইনে বোম পরলে প্রতিবাদ করে, কিন্তু বাংলাদশ বা পাকিস্তানে হিন্দুরা লাগাতার আক্রান্ত হলেও এদের মুখ থেকে কোনদিন একটা কথাও শোনা যায় না।

এখানে জানিয়ে রাখি যে শিধু হিন্দু না, অন্যান্য সংখ্যালঘু যেমন শিখ, বৌদ্ধ এবং জৈনরাও এই নতুন আইনের মাধ্যমে নাগরিকত্ব পাবেন।

Facebook Comments
42K Shares

Related Articles

Open

Close