দুর্নীতি

প্রমাণিত হল দুর্নীতি, রাহুল এবং সোনিয়াকে ১০০ কোটি টাকা জরিমানা করলো আয়কর দপ্তর

দেশের সবথেকে বড় চোর পরিবারের দূর্নীতি আবার প্রমাণিত হল। এবার কি বোঝা যাচ্ছে যে দেশের সবথেকে সৎ প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীকে কেন রাহুল গান্ধীর মত ডাকাতরা চোর চোর করে বদনাম করে? কারণ এরা ভালো করেই জানে যে যতদিন মোদী আছে এদের পক্ষে চুরি করা সম্ভব না।

এবার আসি মূল খবরে, দেশের সবথেকে ক্ষমতাবান রাজনৈতিক পরিবারের চুরি আবার ধরা পরে গেল। আয়কর দপ্তরের তদন্তে ধরা পরলো ৩০০ কোটি টাকার জালিয়াতি।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী আয়কর দপ্তর তাদের তদন্তে জানতে পারে যে রাহুল এবং সোনিয়া গান্ধী ২০১১-১২ আর্থিক বছরে তাদের আয় ৩০০ কোটি টাকা কম দেখিয়েছে। বলে রাখি যে এই সময়েই ন্যাশনাল হেরাল্ডকে প্রায় বিনা মূল্যে কিনেছিল গান্ধী পরিবার, যার সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় কয়েক হাজার কোটি টাকা।

উক্ত আর্থিক বছরে রাহুল গান্ধী নিজের আয় দেখিয়েছিল মাত্র ৬৮ লাখ টাকা দেখিয়েছিল এবং তার ওপরেই আয়কর দিয়েছিল। কিন্তু আয়কর দপ্তরের মতে রাহুল গান্ধী তার ১৫৬ কোটি টাকা এবং সোনিয়া গান্ধী ১৫৪ কোটি টাকা আয় গোপন করেছিল যার ওপর এখন তাদের ৩০% হারে আয়কর দিতে হবে।

বিজেপি প্রথম থেকেই  দাবী করে আসছে যে ৫০০০ কোটি টাকার এই ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় গান্ধী পরিবার সরাসরি দূর্নীতি করেছে, এই মানলায় মা ছেলে বর্তমানে সুপ্রিম কোর্ট থেকে জামিনে আছে। তাই আজকের এই ৩০০ কোটি টাকা আয়ের প্রমাণ সামনে আসার পর বিজেপির অভিযোগ আরও সত্যতার মজবুত ভিত পেল।

Facebook Comments
37K Shares

Related Articles

Close