মহান ভারত

মোদী আমলে রেহাই নেই জঙ্গিদের, মাত্র পাঁচ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার জম্মু বাস স্ট্যান্ড হামলার মূল দোষী

জম্মু কাশ্মীরে আজ বড়সড় জঙ্গি হামলা হয়। জম্মুর বাস স্ট্যান্ডে দাঁড়ানো এক বাসকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড ছোঁরা হয়। আর তারপর বড়সড় বিস্ফোরণ ঘটে। ওই হামলায় ২৮ এর বেশি মানুষ আহত হন। তাঁদের মধ্যে দুজনের অবস্থা শোচনীয়। হিজবুল মুজাহিদ্দিনের জঙ্গি সংগঠন এই হামলা করা। এই হামলায় জড়িত ১০ জনকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এই হামলা সকাল ১১ঃ৩০ নাগাদ হয়, আহতদের জম্মু মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করানো হয়েছে। জম্মু কাশ্মীরের পুলিশ IGP এমকে সিনহা জানায়, এই হামলা গ্রেনেড ছুঁড়েই করা হয়েছে। গ্রেনেড ছোঁড়ার পর বাসের মধ্য বড় বিস্ফোরণ ঘটে।

বিস্ফোরণের খবর পেয়ে জম্মু কাশ্মীর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায়। যেই যায়গায় এই জঙ্গি হামলা হয়েছিল, সেটা জনবহুল এলাকা বলেই পরিচিত। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানর পর গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে। শুধু ওই বাস স্ট্যান্ডই না। গোটা শহরকে নিরপত্তার বলয়ে মুড়ে ফেলা হয়েছে।

এই হামলা রাজ্যের পরিবহণ বাসে হয়েছে। যেই সময় এই ধামাকা হয়েছিল তখন ওই বাস জম্মু বাস স্ট্যান্ডেই দাঁড়িয়েছিল। অনেক যাত্রীও সেই সময় বাসে ছিল বলে জানা যায়। এই ঘটনার মূল দোষী হিজবুল জঙ্গি ইয়াসির ভাটকে গ্রেফতার করেছে। নিজের দোষ স্বীকার করে সে জানিয়েছে, হিজবুল কম্যান্ডার আহমেদ ভাট তাঁকে এই বিস্ফোরণ করার দ্বায়িত্ব দেয়। আর সে এই কাজ করার জন্য আজ সকালেই জম্মুতে এসেছে।

Facebook Comments

Related Articles

Close