রমজান মাসে ভোটের তারিখ নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিলো নির্বাচন কমিশন

রমজান মাসে ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের তারিখ পড়ার পর দেশের মুসলিম নেতা এবং বিরোধীরা প্রশ্ন তুলেছেন। আর তাঁদের প্রতুত্তরে নির্বাচন কমিশন ও মোক্ষম জবাব দিয়েছে। নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, গোটা রমজান মাসে নির্বাচন বন্ধ করে রাখা অসম্ভব। তাঁর সাথে কমিশন থেকে জানানো হয়, সমস্ত রকম উৎসবকে মাথায় রেখে এবারের নির্বাচনী তারিখ ঠিক করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন জানায়, শুক্রবার আর উৎসবের দিনে কোন ভোট নেওয়া হচ্ছেনা।

এর আগে রমজান মাসে নির্বাচনের তারিখ পড়ার জন্য লখনৌ এর মুসলিম ধরমগুরু খালিদ রাশিদ ফিরিঙ্গি, পশ্চিমবঙ্গের মমতা সরকারের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, আর দিল্লির আম আদমি পার্টির বিধায়ক আমাতুল্লা খান আপত্তি দেখিয়েছিলেন। ওনারা বলেছিলেন, রমজান মাসে ভোটের তারিখ ফেলে দেশের কোটি কোটি রোজা রাখা মুসলিমদের সমস্যায় ফেলেছে কমিশন।

আবার এই নেতা এবং ধর্মগুরুদের উল্টো সূর এআইএমআইএম প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়াইসির মুখে শোনা যায়। উনি নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, রমজান মাসে ভোট দিতে মুসলিমদের কোন সমস্যা হবেনা। উনি ভোটের তারিখের বিরোধিতা করা নেতা এবং ধর্মগুরুদের কটাক্ষ ও করেন।

রমজান মাসে লোকসভা নির্বাচনের সূচি নিয়ে ওয়াইসি বলেন, ‘এই মাসে নির্বাচনের বিরোধিতা করা মানুষেরা রমজান নিয়ে কিছু জানে কি? ভারতে রমজান চাঁদের তিথি দেখে ৫ মে শুরু হবে, আর ঈদ ৪ অথবা ৫ জুন হবে। আমাদের দেশে নির্বাচনী প্রক্রিয়া ৩-৪ জুনের মধ্যে সম্পন্ন করার দরকার। তাই রমজান মাসের আগে নির্বাচন হওয়া কোন প্রকারেই সম্ভব না।”

Facebook Comments
207 Shares